ব্রেকিং নিউজ » পেঁয়াজের দামে লাগাম টানতে খাতুনগঞ্জ আড়তে অভিযান

এস আহমেদ ডেক্স প্রতিবেদনঃ » রোববার ৬ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি ঠেকাতে ও স্থিতিশীল রাখতে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়। মূল্যবৃদ্ধি বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে এ অভিযানে ১০ আড়তদারকে জরিমানা করা হয়।সরেজমিন গিয়ে দেখা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক ও শিরিন আক্তারের ভ্রাম্যমান আদালতর মাধ্যমে দাম বৃদ্ধিকারী ১০ পেঁয়াজ ব্যবসায়িকে বিভিন্ন অংকে জরিমানা করা হয়।পেঁয়াজের দাম স্থিতিশীল রাখতেই মুলত এ অভিযান উল্লেখ করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রে বলেন,গত কয়েকদিন ধরেই খাতুনগঞ্জ বাজারে পিয়াজের দাম ২০ টাকার মতো বৃদ্ধি পেয়েছে। বিষয়টি নজরে আসলে এবং দামের লাগাম টানতে আজকে এ অভিযান অভিযানে অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি এবং ইনভয়েস না রেখে বিক্রির প্রমাণ মেলায় ৭৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।খাতুনগঞ্জে বিভিন্ন আড়তে অভিযান পরিচালনা করে বিভিন্ন অনিয়ম থাকায় মেসার্স বরকত ভান্ডার, মেসার্স গোপাল বাণিজ্য ভান্ডার, মেসার্স হাজী মহিউদ্দিন সওদাগর, মেসার্স সেকান্দার অ্যান্ড সন্স, মোহাম্মাদীয়া বাণিজ্যালয়, মোহাম্মদ জালাল উদ্দীনকে ১০ হাজার টাকা এবং গ্রামীণ বাণিজ্যালয়, আরাফাত ট্রেডার্স, মেসার্স বাগদারিক করপোরেশনের এই তিন আড়তদারকে পাঁচ হাজার ও শাহাদাত ট্রেডার্সকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেন, গত কয়েক দিন ধরে পেঁয়াজের দাম প্রতিকেজি ২০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪০-৪৫ টাকায় বিক্রি করছিল কিছু অসাধু আড়তদার। পেঁয়াজের আড়তে সরেজমিনে অভিযানে গেলে আড়তদাররা কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। তারা জানায়, আমদানিকারকের নির্দেশনা অনুযায়ী তারা কমিশনে ব্যবসা করে। তাই দামের ব্যাপারেও নির্দিষ্টতা নেই। অভিযানে আড়ত অনুযায়ী তাদের দামেও ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। তাই তাদের জরিমানা করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, দামের লাগাম টানতে অভিযান অব্যাহত থাকবে। ভবিষ্যতে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।