রাজধানীতে বিভিন্ন স্থানে বাসে অগ্নিসংযোগ ৯ মামলা, গ্রেপ্তার ২০

 

 

রাজধানী ঢাকার কয়েকটি স্থানে বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টা থেকে  সন্ধ্যা ৬টা  মধ্যে প্রেসক্লাব, গুলিস্তান, মতিঝিল, নয়াবাজার ও শাহজাহানপুর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ও শাহবাগ  এলাকায় কয়েকটি স্থানে ১১   যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেওয়া হয়।গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ফায়ার সার্ভিস  কোনো হতাহতের সংবাদ এখনো জানা যাইনি। বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনায় চার থানায় এ পর্যন্ত ৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় পুলিশ ইতিমধ্যে ২০ জনকে গ্রেপ্তারও করেছে  বলে জানা যায়।

সূত্র জানান নাশকতা ও মানুষ পুড়িয়ে মারার আবার ষড়যন্ত্রে   বড়সড় নাশকতার ছক, মূলত ভয়ভীতি দেখিয়ে, নাশকতার জন্য এ ধরনের ঘটনা  চালিয়ে।বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে দাঁড়িয়ে থাকা ও চলন্ত ১১টি বাসে এ অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। দুর্বৃত্তরা যাত্রী সেজে বাসে উঠে গানপাউডার বা এ জাতীয় বিস্ফোরক দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ রকম আলামত পাওয়া গেছে বলে  পুলিশ দাবি করেছে  । বেশির ভাগ ক্ষেত্রে বাসের পেছনের অংশে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। তিনটি স্থানে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটে।

এদিকে অগ্নিসংযোগের এ ঘটনাকে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষমাতসীন আওয়ামী লীগের নেতারা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) ওয়ালিদ হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে, এসব ঘটনা ঢাকা-১৮ আসনে চলমান উপনির্বাচন কেন্দ্র করে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ, প্রত্যক্ষদর্শী এবং বিভিন্ন স্থানে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। কয়েকজনকে শনাক্তও করা গেছে।’

।বিস্তারিত আসছে