করোনা প্রতিরোধে মাস্ক ও আবর্জনা সংগ্রহে ব্যাগ বিতরণে প্রশাসক সুজন

 

করোনা সংক্রমনের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলা, ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে নাগরিক সচেতনতায় মাঠে নেমেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন। নগরবাসীকে নিজ বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের আশ-পাশ পরিস্কার রাখার বার্তা জানিয়ে তিনি আজ বুধবার সকালে নগরীর কাজীর দেউড়ি কাঁচা বাজার পরিদর্শনে যান। পরিদর্শনকালে তিনি পুরো বাজার ঘুরে দেখে ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলেন ও কুশল বিনিময় করেন। এ সময় করোনা প্রতিরোধে বাজারে আসা ক্রেতা সাধারণ ও ব্যবসায়ীদের মাঝে মাস্ক, সাবান বিতরণ ও বাজারের উচ্ছিষ্ট ময়লা আবর্জনা যত্রতত্র না ফেলে সংরক্ষনের জন্য থলে (ব্যাগ) সরবরাহ করেন সুজন। তখন মাস্ক না থাকায় বাজারের এক মাছ বিক্রেতাকে এক দিনের মাছ বিক্রি না করার নির্দেশনা দেন তিনি। এছাড়া যাত্রাপথে প্রশাসক বিভিন্ন গণপরিবহন থামিয়ে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন না করার জন্য সতর্ক করেন। উপস্থিত যাত্রী সাধারণকে নিয়মিত মাস্ক পরিধান করার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। এছাড়া মাস্ক ছাড়া কোন যাত্রী পরিবহণ না করারও নির্দেশনা দেন প্রশাসক। করোনা প্রতিরোধে মাস্ক পরা নিশ্চিতে সিটি কর্পোরেশন প্রতিদিন অভিযান চালাবে বলে প্রশাসক উল্লেখ করেন।
সে সময় প্রশাসক বাজারের ব্যবসায়ী ও আগত ক্রেতা সাধারণের উদ্দেশ্যে বলেন, ইতোমধ্যেই করোনার সংক্রমন ও এতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। শীতও প্রায় আসন্ন। এই সময়ে ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাবও দেখা দেয়। যে কারণে আমরা কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে নগরবাসীকে সর্তকতা অবলম্বন করে চলাচল ও এ থেকে রক্ষায় সচেতন করতে প্রচারপত্র বিলির পাশাপাশি খাল-নালার ময়লা-আবর্জনা পরিস্কার কার্যক্রম শুরু করেছি। নগরবাসীকেও এ ব্যাপারে সচেতন হতে হবে। তিনি জনসাধারণকে প্রয়োজনীয় কাজে বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করা ও নিজ বাড়ির আশ-পাশ, রেফ্রিজারেটরের ট্রেতে জমে থাকা পানি, উঠোন আঙ্গিনায় পড়ে থাকা ডাবের খোসা, শৌচাগারের ফ্লাসে যাতে পানি জমতে না পারে সেই দিকে বিশেষভাবে নজর রাখতে বলেন।
প্রশাসক বাজারের ব্যবসায়ীদের সরবরাহ করা ব্যাগে ময়লা জমানোর পর তা কর্পোরেশনের নির্দিষ্ট ডাস্টবিনে ফেলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা আপনাদের সচেতন ও অনুরোধ করছি। কাজ না হলে শীঘ্রই কর্পোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালত মাস্ক পরা নিশ্চিত ও যত্রতত্র আবর্জনা ফেলা বন্ধ অভিযান চালিয়ে জরিমানা ও শাস্তির ব্যবস্থা নিবে। পরিদর্শনকালে প্রশাসকের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, বাগমনিরাম ওর্য়াড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান বাচ্চু, অতিরিক্ত প্রধান পরিছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলম, পরিছন্ন কর্মকর্তা প্রণব শর্মা, আলী আকবর, রিপনসহ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পরিছন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ প্রশাসকের সাথে ছিলেন।