করোনাভাইরাস সংক্রমণ বিপজ্জনক আক্রান্ত দ্বিগুণের বেশি

নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিপজ্জনক এলাকায় পরিণত হয়েছে বন্দর নগরী চট্টগ্রাম। প্রতিদিন ১০০ জনের বেশি মানুষের শরীরে শনাক্ত হচ্ছে করোনা।  নমুনা অনুপাতে শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ২৪ শতাংশ। এদের মধ্যে ১৮৬ জন মহানগরের বাসিন্দা ও ৩৭ জন উপজেলার বাসিন্দা। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪ হাজার ৩৯৮ জন। এদের মধ্যে ১৮ হাজার ২৮৬ জন ও ৬ হাজার ১০০ জন উপজেলার বাসিন্দা। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩১৮ জন। সামাজিকভাবে সংক্রমণের সংখ্যাও বেড়ে চলছে। অবাধ যাতায়াত ও স্বাস্থ্যবিধি না মানা এর জন্য দায়ী বলে মনে করছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে চট্টগ্রামের ৮টি ল্যাব ও কক্সবাজার মেডিকেলে এক হাজার ৫৬৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২৩ জনের কোভিট পজিটিভ এসেছে। চট্টগ্রামে কোভিট আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে মোট ৩১৮ জন।
ল্যাবভিত্তিক তথ্যমতে, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৬ জনের ও ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে ৮৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৪ জনের দেহে করোনা পজিটিভ এসেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জনের ও চট্টগ্রাম ভেটেরেনারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭১ জনের পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে কারও করোনা শনাক্ত হয়নি। ইমপেরিয়াল হাসপাতালে ৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩৪ জন, শেভরণ হাসপাতালে ৪৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৬ জনের ও চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ২৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১ জনের করোনা শনাক্ত পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। জেনারেল হাসপাতাল রিজিওন্যাল টিউবারকুলোসিস র‌্যাফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জনে শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।