করোনায় ৬৪জন নেতাকর্মী হারিয়েছে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামীলীগ-মেয়র নাছির

এপ্রিল থেকে চলতি ডিসেম্বর পর্যন্ত চলমান করোনা কালে ওয়ার্ড,থানা,ইউনিট ও মহানগর পর্যায়ের ৬৪ জন নেতাকর্মী মারা গেছেন। এতে করে দলের সাংগঠনিক শূণ্যতা সৃষ্টি হয়েছে। এই শূণ্যতা পূরণে দলের প্রকৃত ত্যাগী,নিবেদিত নেতাদেরকে শূণ্যপদে পদায়ন করার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ। আজ ২৮ ডিসেম্বর নগরীর ৯ নং উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড কার্যালয় চত্বরে উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহবায়ক মরহুম এস এম আলমগীরের নাগরিক শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন একথা বলেন।
তিনি বলেন, এই করোনাকালে আওয়ামীলীগের চট্টগ্রাম মহানগর পর্যায় থেকে শুরু করে থানা,ওয়ার্ড ও ইউনিট পর্যায়ের ৬৪ জন নেতাকর্মী মৃত্যুবরণ করেছেন। না ফেরার দেশে চলে যাওয়া এই নেতাকর্মীরা ছিলেন দলের সম্পদ। ক্ষমতায় থাকায় অনেক সুযোগ সন্ধানী বহিরাগত দলে ঢুকে পড়েছে। দলের সম্পদ দুঃসময়ের এই নেতাকর্মীরা কোনঠাসা হয়ে যাচ্ছেন। আর কাউকে আমরা হারাতে চাইনা। আমরা তাদেরকে অবশ্যই মূল্যায়ন করতে চাই। ত্যাগী,নিবেদিত নেতাকর্মীদেরকে মহানগর থেকে তৃনমূল পর্যায় পর্যন্ত সঠিক নেতৃত্বের আসনে আনতে পারলে দলের জন্য তা মঙ্গলজনক হবে। করোনাকালের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। এই ঢেউ প্রতিরোধে প্রত্যেক স্তরের নেতাকর্মীদেরকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাজনৈতিক,সামাজিক কর্মকান্ড করার পরামর্শ দেন তিনি।
আকবর শাহ থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাজী আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদসহ থানা ,ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সংশ্লিষ্ট নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন