বিদায় ২০২০, স্বাগতম ২০২১

`আজ শুক্রবার(১জানুয়ারি)সূর্যাস্তের মধ্য দিয়ে অনন্তকালের পথে যাত্রা শুরু করেছে বিদায় ২০২০।হাসি-কান্না, আনন্দ-বেদনায় কেটে গেলো একটি বছর। সব দুঃখ-বেদনা ভুলে সারাবিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশও বরণ করেছে নতুন বছরকে। স্বাগতম ২০২১,।পৃথিবীর মানুষ ২০২১-কে স্বাগত জানিয়েছে পরম আগ্রহে। পাওয়া না পাওয়ার নানা কাব্য নিয়ে মহাকালের গর্ভে হারিয়ে গেল ২০২০।  পুরাতনের গ্লানি ভুলে পূর্বাকাশে উদিত হয়েছে নতুন সূর্য।পুরানো সকল আনন্দ-বেদনা কালের মহাস্রোতে হয়েছে ইতিহাস।অবশেষে বিদায় নিলো ২০২০।  তার কড়ালগ্রাস থেকে রক্ষা পায়নি বাংলাদেশও। সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক এবং শিক্ষাসহ সবক্ষেত্রেই করোনাভাইরাসের প্রভাবে এসেছে স্থবিরতা। আমাদের জাতীয় জীবনে এসেছে নানা দুর্ভোগ, এসেছে উত্থান-পতন। করোনার ছোবলে প্রিয়জন হারিয়ে, ভবিষ্যৎ অনিশ্চিয়তায় বিষাদময় হয়ে উঠেছে জীবন ধারণ। ২০২০ ছিল মহামারি ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের বছর। নতুন বছরে এসকল দুঃখ-বেদনা ভুলে ঘুরে দাঁড়াতে চান মানুষ। তাই সবার একটাই প্রার্থনা করোনার ভয়াল গ্রাস থেকে নতুন বছরটি যেন ভালো যায়। সবার প্রত্যাশা করোনাভাইরাসের এই ক্ষত থেকে নিরাময় হয়ে মুক্তি পাবে গোটা পৃথিবী।সারা বিশ্বে করোনা কেড়ে নিয়েছে বুদ্ধিজীবী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ লাখো মানুষকে। নতুন বছরে প্রিয়জন হারানোর বেদনা ভুলে আবার ঘুরে দাঁড়াবে মানুষ। বিশ্বের নানা প্রান্তে বর্ণিল আয়োজনের মধ্যে উদযাপিত হত এই ইংরেজি বর্ষবরণ। তবে এবার লাখো প্রাণকেড়ে নেওয়া করোনার কারণে বিষণ্নতা মোড়ানো এ উৎসব। স্বাস্থ্যবিধি মেনে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও সীমাবদ্ধ আয়োজনে বরণ করে নেওয়া হচ্ছে নতুন বছর। সীমিত পরিসরে বর্ণিল আলোকচ্ছটার মধ্য দিয়ে ২০২১ কে স্বাগত জানাচ্ছে বিশ্বের দেশগুলো। ২০২০ সাল বিষাদের বছর হলেও অর্জনও বাংলাদেশের কম নয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী, পদ্মার বুকে স্বপ্নের সেতু দৃশ্যমান হওয়া, রেমিট্যান্স ও রিজার্ভে রেকর্ড, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠানো, যুবা ক্রিকেট দলের আইসিসির অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয় ছিল বড় প্রাপ্তি। যা হোক- করোনায় বিধ্বস্ত পৃথিবীতে  সকল অনিশ্চিয়তা কাটিয়ে, মৃত্যুকে জয় করে আবারও সবাই স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে –এটাই ২০২১ সালের প্রত্যাশা। সবাইকে আলোর কন্ঠ২৪.নিউজের পক্ষ থেকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।