চট্রগ্রাম নগরীর বৌবাজারসহ কাচাবাজারে প্রায় সবধরণের সবজির দাম স্থিতিশীল »

শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম নগরীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে কাচাবাজারে প্রায় সবধরণের সবজির দাম স্থিতিশীল । মাছ ও মুরগীর দাম গত সপ্তাহের চেয়ে অনেকটাই বেড়েছে।অন্যদিকে বেড়ে গেছে ডিম, মাছ ও মাংশের দাম। বাজারে ব্রয়লার মুরগি ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর ডিম বিক্রি হচ্ছে ডজন ১০৫ টাকায়। এছাড়া আগের চেয়ে একটু কমেছে মরিচ ও টমেটোর দাম ঝনিয়াপাতা ১আটি ১০টাকা ৫০০ গ্রাম। ব্যবসায়ীরা জানান, গত সপ্তাহ থেকে চাল চলতি সপ্তাহে এসে কেজিতে আরও বেড়েছে ৫ থেকে ১০ টাকা চট্টগ্রাম নগরীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে চালের দাম কেজিতে বেড়েছে দুই থেকে তিন টাকা করে। ফলে প্রতি বস্তায় ১০০ থেকে ১৫০ টাকা বাড়তি গুণতে হচ্ছে ক্রেতাদের। তবে খুচরা ও পাইকারি— দুই বাজারেই কমেছে পেঁয়াজের দাম এক সপ্তাহের ব্যবধানে আলু কেজি ২৫ টাকা। আবার বাঁধাকপি, শিম, বেগুন ও শসার মতো নতুন সবজির দাম অনেক কম।মাছের মধ্যে রূপচাঁদা ৬০০ টাকা, চিংড়ি ৪০০-৫৫০ টাকা, রুই ২২০-২৫০ টাকা, কাতাল ২০০-২২০ টাকা, নাইলেটিকা ১২০ টাকা, দেশি কৈ ৩০০ টাকা, খামার ১৫০ টাকা, দেশি শিং ৩৫০ টাকা, খামারের মাগুর ১৫০ টাকা, পোপা ২০০ টাকা, পাঙ্গাস ১২০ টাকা, লইট্টা ৯০-১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গরুর মাংস ৬০০/ ৭০০ টাকা ও খাসির মাংস ৭০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে ব্রয়লার মুরগি ১০০ টাকা, পাকিস্তানি কক ২২০ টাকা, সাদা কক ২০০ ও দেশি মুরগি ৪০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।বর্তমানে খুচরা বাজারে মিনিকেট চাল ৫৫ থেকে ৫৮ টাকা, আটাশ চাল ৪৮ থেকে ৫০ টাকা, নাজিরশাইল ৬০ থেকে ৬২ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। আর পাইকারি বাজারে ৫০ কেজির প্রতি বস্তা মিনিকেট চালের দাম পড়ছে ২৭৫০ থেকে ২৮০০ টাকা। অন্যদিকে আটাশ ২৪০০ টাকা ও নাজিরশাইল প্রতি বস্তা বিক্রি হচ্ছে ২৩০০ থেকে ৩০০০ টাকায়।