চট্টগ্রামে এম এ আজিজের মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা ভালোবাসা

সোমবার, ১১ জানুয়ারি ২০২১, ২৭ পৌষ দুপুরে উত্তর হালিশহরে তার স্মরণে সভা করে আওয়ামী লীগ। প্রয়াত নেতার কবর জেয়ারত, ফাতেহা ও দোয়া পাঠ শেষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা ।মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মরহুমের স্মরণে সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে হালিশহরস্থ উত্তরা ভবনে আলোচনা সভা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী সভাপতিত্বে বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, “স্বাধীনতার প্রশ্নে এম এ আজিজ ছিলেন এক দফার প্রবক্তা। সেই এক দফাই আমাদের আজকের স্বাধীন বাংলাদেশ। এখন বাংলাদেশ রক্ষায় একই এক দফা হলো জঙ্গিবাদ ও যুদ্ধাপরাধীমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা। এতেই এম এ আজিজ এবং স্বাধীনতার জন্য আত্মত্যাগীকারী ৩০ লক্ষ বাঙালির স্বপ্নপূরণ সম্ভব হবে। স্বাধীনতাকে রক্ষার জন্য সর্বাত্মক লড়াই অব্যাহত রাখতে হবে। কারণ বাংলাদেশ এখনও নিরাপদ নয়। একজন খালেদা জিয়া স্বাধীনতা বিরোধীদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। জননেতা আজিজের ৫০ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর মাজার প্রাঙ্গনে স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, এম এ আজিজ ৬ দফাকে ১ দফা পরিণত করার প্রধান উদ্যোক্তা। তিনি বাঙালির আশা জাগানিয়া শক্তির প্রেরণা হয়ে চিরঞ্জীব হয়ে থাকবেন। মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, এম এ আজিজ মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম রূপকার। মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চসিক মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, এম এ আজিজ এ দেশে মাটি ও মানুষের স্বরাজ প্রতিষ্ঠার আদর্শিক বাতিঘর।।নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, “এম এ আজিজ মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম রূপকার। বঙ্গবন্ধু ৬ দফা ঘোষণার পর তিনি উপলব্ধি করেন যে এক দফায়ই বাংলার মুক্তি। আজিজ-জহুর আমাদের অহংকার। শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন, ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী লায়ন মোহাম্মদ হোসেন, যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা বদিউল আলম বদি, মরহুমের সন্তান কার্যনির্বাহী সদস্য সাইফু্‌দ্িদন খালেদ বাহার, আবদুল লতিফ টিপু, রেজাউল করিম কায়সার, ৩৭ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মান্নান, নাজিমুল ইসলাম মজুমদার।