আজ ভারতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন নরেন্দ্র মোদি

আজ শনিবার(১৬জানুয়ারি)ভারতে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যাপক করোনা টিকাদান কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। প্রথমদিনে সারাদেশে তিন লাখ স্বাস্থ্যকর্মীকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আজ সকাল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে করোনা-১৯ ভ্যাকসিন কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

ইতোমধ্যেই ভারত সরকার সারাদেশে প্রতিটি রাজ্যে ও টেরিটরিতে এই ভ্যাকসিন পৌঁছে দিয়েছে। সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (এসআইআই) এবং ভারত বায়োটেক লিমিটেড উৎপাদিত টিকা ‘কোভিশিল্ড’ ও ‘কোভ্যাকসিন’ উভয় ধরণের পর্যাপ্ত টিকা সারাদেশে সরবরাহ করা হয়েছে।

সারা দেশে ৩০০৬ টি স্পটে ভারচ্যুয়ালি সংযুক্ত অনুষ্ঠানের সময় টিকা প্রদান শুরু করা হবে। উদ্বোধনী দিনে প্রতিটি স্পটে কমপক্ষে একশত লোককে ভ্যাকসিন দেয়া হবে। প্রথম ধাপে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে আইসিডিএস কর্মীসহ স্বাস্থ্য কর্মীরা এই ভ্যাকসিন পাবেন।

ভারত সরকারের পক্ষ থেকে শুক্রবার সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করা হয়। এতে বলা হয়, ১৮ বছরের নিচে কাউকে, সন্তানকে বুকের দুধ দিচ্ছেন এমন মা এবং গর্ভবতী কোন নারীকে ভ্যাকসিন দেয়া যাবে না।

দুই ধরণের টিকার মধ্যে প্রথম ডোজ ও দ্বিতীয় ডোজ প্রদানের সময় টিকার ধরণ পরিবর্তন করা যাবে না। দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করার সময় প্রথম ডোজ যে ভ্যাকসিন নিয়েছেন, কেবল সেটিরই দ্বিতীয় ডোজ নিতে হবে।

ভারতের ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল (ডিসিজিআই) গত ৩ জানুয়ারি ‘কোভিশিল্ড ও কোভ্যাকসিন নামে দুটি করোনা ভ্যাকসিন অনুমোদন করে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং আস্ত্রা জেনেকা যৌথভাবে কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন এবং ভারত বায়োটেক লিমিটেড কোভ্যাকসিন তৈরি করেছে।