তৃণমূলের মতদ্বৈততা নিরসনে কাজ শুরু করেছে নগর আওয়ামীলীগ

দল মনোনীত মেয়র ও সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীদেরকে বিজয়ী করতে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ড জুড়ে তৃণমূল আওয়ামীলীগের মতদ্বৈততা নিরসন কাজ শুরু করেছে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ। তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে নানামুখী মত বিরোধ,মতদ্বৈততার কারণে সৃষ্ট মান অভিমান ভাঙ্গাতে এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন শুরু করেছে সংগঠনটি। এই লক্ষ্যে কেন্দ্রের নির্দেশে রোববার থেকে ওয়ার্ডভিত্তিক কর্মসূচি শুরু করেছে। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন নগরীর ৪১নং দক্ষিণ পতেঙ্গা ওয়ার্ডের দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীদের সাথে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ও সংশ্লিষ্ট নেতাকর্মীদের সাথে মত বিনিময়ের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করেছেন। একই সময় ৪০ নং উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ডের দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীর সাথেও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের সাথে মত বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আয়োজিত মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ দলের প্রত্যেক নেতাকর্মীকে মূল্যায়ন করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই মেয়র,কাউন্সিলর বা সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। দলের নির্দেশ না মেনে যারা নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেন,তাদেরকে কেন্দ্রের নির্দেশেই নিবৃত্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মান অভিমান নিরসন করে দলের মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে করণীয় নির্ধারণে নগর আওয়ামীলীগ সবাইকে একটেবিলে বসাতে শুরু করেছে। দল করলে দলের ¯^ার্থকে প্রাধান্য দিতে হবে। দলের নির্দেশের প্রতি অনুগত থাকতে হবে। আমি দল করবো অথচ দলের সিদ্ধান্তকে মানবো না এমন কাজ সাংগঠনিক হতে পারে না। নিজেদের মধ্যে বিভেদ বিভ্রান্তির কারণে যারা দলীয় নির্দেশনা ভুলে ব্যক্তিগত পরিকল্পনায় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন তাদেরকে শেষবারের মতো নিবৃত্ত করতে আমাদের এই উদ্যোগ। এরপরও যারা নিজের সিদ্ধান্তে অটল থেকে নির্বাচন করবেন তারা আমি মনে করি চরম ভুল করবেন। এমনকি তাদেরকে পৃষ্টপোষক বা সমর্থন জানিয়ে যারা কর্মকান্ড পরিচালনা করবেন-তাদের ব্যাপারে দল সাংগঠনিক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।প্রত্যেক নেতাকর্মীকে সকল ধরণের মত বিরোধ-বিভ্রান্তি ভুলে বৃহত্তর ¯^ার্থের কথা চিন্তা করে দলের মনোনীত ও সমর্থিত প্রার্থীদের জন্য জনগণের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে দলের প্রার্থীকে বিজয়ের বিকল্প কিছু নেই।
সভায় মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহি সদস্য রোটারিয়ান মো. ইলিয়াস, থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক এস এম ইসলাম, থানা আওয়ামী লীগ নেতা কামরুল হাসান বুলু, ৪১নং দ¶িণ পতেঙ্গা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দল মনোনীত কাউন্সিলর পদ প্রার্থী আলহাজ্ব ছালেহ আহমদ চৌধুরী, ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও দল মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল বারেক, দক্ষিন পতেঙ্গা ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম টেন্ডল সিনিয়র সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম, ওয়াহিদুল আলম মাস্টার মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফুর, আবুল হোসেন,আব্দুল কাদের,যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর আলম,উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ফরিদুল আলম, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল হালিম, কামরুল ইসলাম রাশেদ,এস এম মহিউদ্দিন,আনসারুল হক, জামাল উদ্দিন,লোকমান, লোকমান, চট্টগ্রাম মহানগর কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাবেদ হোসেন,ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সদস্য ওয়াহিদুল আলম চৌধুরী,ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মাইনুল ইসলাম, সাঃ সম্পাদক জামাল উদ্দিন রাজু, মহানগর যুবলীগ সদস্য শাকিল হারুন, ওয়ার্ড যুবলীগের সহ সভাপতি মুছা আলম, ফোরকান,লোকমান,সাংগঠনিক সম্পাদক বেলাল হোসেন, যুবলীগ নেতা তানভীর চৌধুরী,ইয়াছিন,শরীফ, ওমর ফারুক, পারভেজ,সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি লোকমান হাকিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।