বিশ্ব ক্যান্সার দিবস’ আজ

আজ ৪ ফেব্রুয়ারি, ‘বিশ্ব ক্যান্সার দিবস’। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও প্রতি বছর যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালন করা হয়। প্রতি বৎসর ৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ক্যান্সার দিবস বা বিশ্ব ক্যান্সার সচেতনা দিবস পালন করা হয়। এবার এ দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘ক্যান্সারের বিরুদ্ধে আমি আছি, আমি থাকবো।’ এই দিনটিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(WHO) ক্যান্সার প্রতিরোধ এবং ক্যান্সার রোগীদের জীবন ধারার মান উন্নয়নে ইন্টারন্যাশানাল ইউনিয়ন এগেনষ্ট ক্যান্সার (International Union Against Cancer)-কে সহায়তা করে থাকে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে এই দিবসটি উদযাপন করা হয়। বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও আজ পালিত হচ্ছে বিশ্ব ক্যান্সার দিবস। ২০০৮ সালে প্রথম এ দিবস পালন শুরু করে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন এগেইনেস্ট ক্যান্সার কন্ট্রোল (ইউআইসিসি)।বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ পালিত হচ্ছে বিশ্ব ক্যান্সার দিবস। ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার শুরুর দিকেই যাতে এই রোগটিকে শনাক্ত করা যায় তার জন্য প্রয়োজন সচেতনতা বৃদ্ধি।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অধিভূক্ত সংস্থা গ্লোবোক্যানের হিসাব অনুযায়ী দেশে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। বছরে দেশে এক লাখ ৫০ হাজার লোক এই রোগে আক্রান্ত হয়। মারা যায় এক লাখ ৮ হাজার। বাংলাদেশে ১৬ থেকে ১৭ লাখ ক্যান্সার রোগী রয়েছেন বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সারের (আইএআরসি) প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে নারী ক্যান্সার রোগীদের মধ্যে স্তন ক্যান্সারের পরই জরায়ু মুখের ক্যান্সারের অবস্থান। প্রতি বছর এই রোগে ৮ হাজার ৬৮ জন নারী নতুন করে আক্রান্ত হন, যা নারী ক্যান্সার রোগীর প্রায় ১২ শতাংশ। এর মাঝে মারা যান ৫ হাজার ২১৪ জন।জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড. বেগম রোকেয়া আনোয়ার জানান, বাংলাদেশের নারীরা জরায়ুমুখের ক্যান্সার ও স্তন ক্যান্সারের কারণে বেশি মারা যাচ্ছে। অথচ উন্নত বিশ্বে এটি শূন্যের ঘরে নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। কারণ এই রোগ পুরোপুরি প্রতিরোগযোগ্য। পূর্ব-লক্ষণ যাচাইয়ের জন্য বাংলাদেশেও বেশ কিছু পদ্ধতি রয়েছে এবং ভিআইএ নামে সহজ একটি পরীক্ষা জাতীয়ভাবে পরিচালিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, মেয়েরা যখন সুস্থ থাকেন, তখন মনে করেন- আমি তো সুস্থ, কেন আমি ডাক্তারের কাছে যাব? কিন্তু যে কোনো ক্যান্সারের পূর্ব-লক্ষণ নির্ণয় করতে হলে সুস্থ অবস্থাতেই তাকে হাসপাতালে আসতে হবে।