খাগড়াছড়িতে বাড়ছে করোনা সংক্রমন

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃখাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ৯টি উপজেলাতে ফের করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। গত দুই দিনে জেলায় নতুন করে আরও ৭জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএন আবছারও রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮শ ৩৭জনে। তার মধ্যে সুস্থ্ হয়েছেন ৮শত ৩জন। আর মারা গেছেন ৭জন।
এ দিকে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় মাস্ক ব্যবহারসহ সরকারের ১১নির্দেশনা পালন নিশ্চিতে খাগড়াছড়িতে ফের মাঠে নেমেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত শুরু হয়েছে। পাশাপাশি খাগড়াছড়িতে সাধারণ জনগণের মাঝে করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টিতে মাইকিং ও মাস্ক বিতরণ করেছে জেলা পুলিশ।

সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক দিন ধরে খাগড়াছড়ি প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে মাস্ক না পরার অপরাধে ১শ ৯৪জনকে ২৫হাজার ৮শ ২০টাকা জরিমানা করেছে।
খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস জানান, খাগড়াছড়ি জেলার সব উপজেলায় মানুষের মধ্যে মাস্ক পরিধান নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে ফের ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ শুরু হয়েছে। সবাইকে আরও বেশি সতর্ক হতে হবে। করোনা টিকা নেওয়া হোক বা না হোক সবাইকে বাড়ির বাইরে বের হলে মাস্ক পরিধান করতে হবে। না হলে তাদের বিরুদ্ধে সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মুল আইনের আওতায় নেওয়া হবে।
খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা: নুপুর কান্তি দাশ জানান, করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের সব ধরনের প্রস্তুুতি রয়েছে। জেলা সদরসহ প্রত্যেক উপজেলায় রয়েছে পর্যাপ্ত আইসোলেশন ওয়ার্ড ও অক্সিজেন। তিনি আরও জানান, খাগড়াছড়িতে এ পর্যন্ত ৩০হাজার ভ্যাকসিন পেয়েছি। এ করোনা টিকা গ্রহণ করেছে প্রায় ২৫হাজার মানুষ। তিনি করোনা টিকা গ্রহণ করলেও সবাইকে মাস্ক পরাসহ করোনাভাইরাস বিস্তার রোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে অনুরোধ জানান।
এদিকে করোনা ভাইরাসের(কোভিড-১৯) বিস্তার রোধে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে মাস্ক পরিধান না করায় পার্বত্য খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় ১৮জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। গত সোমবার(২২শে মার্চ) বিকেলের দিকে মাটিরাঙ্গা বাজারের মুক্তিযোদ্ধা চত্বর, সিএনজি স্টেশন, পুরাতন হাসপাতাল মোড়সহ বিভিন্ন স্থানে এ অভিযান পরিচালনা করেন মাটিরাঙ্গার সহকারী কমিশনার(ভুমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মিজ ফারজানা আক্তার ববি।
অভিযানে মাস্ক পরিধান না করায় মোটর সাইকেল চালক, পথচারী ও ব্যাবসায়ীসহ ১৮জনকে ৩হাজার দুই শত টাকা জরিমানা করা হয়। একই সাথে তিনি বিভিন্ন জনের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন। দেশে আবারও করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে উল্লেখ করে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার(ভুমি) মিজ ফারজানা আক্তার ববি জানান, করোনার সংক্রমণ এড়াতে মাস্ক ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা একান্ত প্রয়োজন। তাই জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে অভিযান চালানো হয়। এ অভিযান চলমান থাকবে বলেও জানান তিনি। প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৯শে এপ্রিল খাগড়াছড়িতে প্রথম করোনাভাইরাস সনাক্ত হয়।