বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ৫ সমঝোতা স্মারক সই

আজ শনিবার(২৭মার্চ)বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পাঁচটি সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এসব সমঝোতা স্মারক সই হয়। এছাড়া কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধন করা হয়েছে। ভারতের পক্ষ থেকে ১০৯টি অ্যাম্বুলেন্স ও ১২ লাখ করোনা টিকা উপহার দেয়া হয়েছে।আজ সন্ধ্যায় এসব সমঝোতা স্মারক সই হয়। পাশাপাশি অ্যাম্বুলেন্সের চাবি ও টিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ দিন বিকেল ৫টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আসেন। এ সময় তাকে অভ্যর্থনা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে দুই দেশের প্রতিনিধি পর্যায়ে ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক হয়। এরপর দুই নেতার উপস্থিতিতে পাঁচটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং স্বাস্থ্য, বাণিজ্য, সংযোগ, শক্তি, উন্নয়ন সহযোগিতা এবং আরও অনেক ক্ষেত্রে অর্জনের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দুদিনের সফরে ঢাকায় অবস্থান করছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

এরআগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী পালন অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণে দু’দিনের এক রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি এখানে পৌঁছানোর পর তাকে জাকজমকপূর্ণভাবে অভ্যর্থনা জানানো হয়।

বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান।

নরেন্দ্র মোদি বিমানবন্দরে পৌঁছালে ১৯ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে তাকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। বিমানবন্দরে তাকে লাল গালিচা অভ্যর্থনা দেয়া হয়। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশের গ্রহণ করা ১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আসা বিশ্ব নেতাদের মধ্যে পঞ্চম হলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ রোগ ছড়িয়ে পড়ার পর এটি হচ্ছে নরেন্দ্র মোদির প্রথম বিদেশ সফর।