» চট্টগ্রামের রাজপথে নগর আ’লীগ, হেফাজতের হরতালে সাড়া নেই

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, সমাবেশ ও সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনার জেরে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়ছিল হেফাজতে ইসলাম।।চট্টগ্রাম নগর আ’লীগের হরতাল বিরোধী সভা রবিবার সকাল ৯টায় দারুল ফজল মার্কেট চত্বর, অঙিজেন মোড় এবং বহদ্দারহাট মোড়ে নাশকতা ও নৈরাজ্য বিরোধী অবস্থান-সমাবেশ কর্মসূচি পালন করে । সভায় মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মু্তিযদ্ধা মাহতাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে হেফাজতকে ইসলাম ধর্মের নাম দিয়ে রাজনীতি ও ব্যবসা-বাণিজ্য করতে দেওয়া হবেনা বলে মন্তব্য করেছেন নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি আরো বলেন
হেফাজত ইসলাম ধর্মকে ডাল হিসেবে ব্যবহার করে রাজনৈতিক ইস্যুহীন ও জনগণ প্রত্যাখ্যাত বিএনপি-জামায়াতের এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাঠে নামতে চায়। তাদের যেকোন ধরনের অপতৎপরতার কঠোরভাবে জবাব দেয়া হবে। হেফাজত ইসলামের ডাকা হরতালের প্রতিবাদে নগর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে সমগ্র জাতি যখন দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে একাত্ম ও আত্মনিবেদিত, ঠিক তখনি চিরচেনা ঘৃণিত ও বিবেক বুদ্ধিহীন মানবতা বিরোধী ঘাতকদের পরিকল্পিত নাশকতা ও নৈরাজ্য জানান দিচ্ছে এখন আর সময় ক্ষেপনের ফুসরত নেই এবং পাল্টা আঘাত হেনে জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসের বিষবৃক্ষ উপড়ে ফেলতে হবে। বক্তারা বলেন, প্রয়োজনে নগর আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের নিয়ে হেফাজতের যে কোন কর্মসূচি প্রতিহত করতে আমরা প্রস্তুত আছি।
বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীর এ অনুষ্ঠানে অনেক দেশের রাষ্ট্র প্রধানরা এসেছেন। তাদের আগমন নিয়ে হেফাজতের কোন মাথা ব্যথা ছিল না। কিন্তু ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে ঘিরে তারা বিএনপি-জামাতের ইন্ধনে কঠিন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এখানে দেশী-বিদেশী অনেক ষড়যন্ত্রকারীদের হাত রয়েছে। বিএনপি- জামাত ও স্বাধীনতা বিরোধী চক্র হেফাজতকে সামনে রেখে দেশব্যাপী অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করছে। আমরা তাদেরকে শক্ত হাতে দমন করবো। মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম উদ্দিন চৌধুরী, সিটি মেয়র নগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম রেজাউল করিম চৌধুরী অ্যাড.ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য আবদুচ ছালাম, নোমান আল মাহমুদ, শফিক আদনান, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, শফিকুল ইসলাম ফারুক, অ্যাড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, মশিউর রহমান চৌধুরী, জহুর আহমদ, জালাল উদ্দিন ইকবাল, দিদারুল আলম চৌধুরী, আবদুল আহাদ, ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী, মো. শহীদুল আলম ও জহরলাল হাজারী।ন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধূরী, মহানগর যুবলীগ নেতা মাহবুবুল হক, স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক এডভোকেট জিয়াউদ্দিন জিয়াসহ ওয়ার্ড ও থানা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগের নেতা-কর্মীরা বক্তব্য রাখেন।
সরজমিন ঘুরে দেখা রোববার (২৮ মার্চ) সকাল থেকে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। রাস্তায় দেখা যায়নি হরতাল আহ্বানকারীদের।আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পুলিশ‌্যাবের পাশাপাশি মাঠে বিজিবি সদস্যদের টহল জোরদার। যে কোনো নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড প্রতিহত করতে সদস্যদের সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় থাকতে বলা হয়েছে অন্যদিকে হেফাজত হরতালের নামে যাতে কোনো নাশকতা ও সহিংসতা চালাতে না পারে, সে জন্য মাঠে রয়েছে
নগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। তারা