জলবায়ুযুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

মানবজাতির হুমকি এড়াতে জলবায়ুযুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।জাতিসংঘের ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ সম্মাননা জয়ী শেখ হাসিনা ডিপ্লোম্যাট ম্যাগাজিনের এপ্রিল সংখ্যায় প্রকাশিত এক নিবন্ধে লিখেছেন, ঐক্যবদ্ধ না হলে জলবায়ুযুদ্ধে পরাজয় নিশ্চিত। বর্তমানে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে প্রকৃতি আমাদের বাঁচিয়ে রেখেছে, খুব সচেতনভাবে মানুষ তাকে ধ্বংস করছে। এছাড়া এ বছরের শেষে গ্লাসগোতে ২৬তম বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনকে অর্থবহ করতে সিভিএফ-কপ-২৬ ঐক্যের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

শেখ হাসিনা লিখেছেন, বাংলাদেশকে বলা হয় প্রাকৃতিক দুর্যোগের ‘গ্রাউন্ড জিরো’। এ দেশের অনেক মানুষের জন্য জলবায়ু পরিবর্তন মানে অস্তিত্বের সঙ্কট। প্রতি বছর প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে বাংলাদেশ তার জিডিপির ২ শতাংশ হারায় যা এই শতকের শেষে পৌঁছাবে ৯ শতাংশে।

বৈশ্বিক উষ্ণতার কারণে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়তে থাকলে ২০৫০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকার ১৭ শতাংশ চলে যাবে পানির নিচে, তাতে বাস্তুচ্যুত হবে তিন কোটি মানুষ। এরই মধ্যে ৬০ লাখ বাংলাদেশি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাস্তুহারা হয়েছে। এরপরও ১ কোটি ১০ লাখ রোহিঙ্গার ভার বহন করে চলেছে বাংলাদেশ। যার জন্য পরিবেশগত মূল্যও চুকাতে হচ্ছে এই দেশকে।