করোনাকালে স্বাস্থ্য সুরক্ষাসহ নানা পদক্ষেপ নেয়ার চেষ্টা করছে ইডিইউ

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ) কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষরিত রেফারেন্স দেখালেই এখন স্বনামধন্য চিকিৎসা সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান এপিক হেলথ কেয়ারে বিশেষ ছাড় পাওয়া যাবে। পাঁচলাইশস্থ এপিক হেলথ কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টার অ্যান্ড স্পেশালাইজড ডক্টরস চেম্বারে সকল ধরনের প্যাথলজি ও ডায়াগনস্টিক সার্ভিসে বিভিন্ন হারে ছাড় পাচ্ছে ইডিইউর শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং তাদের পরিবার। গতকাল রোববার বেলা ১২টায় ইডিইউ ক্যাম্পাসে এ সংক্রান্ত এক চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তি স্বাক্ষর করেন ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির পক্ষে রেজিস্ট্রার সজল কান্তি বড়–য়া ও এপিক হেলথ কেয়ারের পক্ষে এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং) টিএম হান্নান।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ইডিইউর উপাচার্য অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান, স্কুল অব বিজনেসের অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. মু. রকিবুল কবির, প্রক্টর মু. আসাদুজ্জামান, নেটওয়ার্কিং এন্ড প্লেসমেন্ট সেল এর সিনিয়র এক্সিকিউটিভ তানজিদা আফরিন খন্দকার, এপিক হেলথ কেয়ারের ডিরেক্টর অপারেশন এন্ড সিওও ডা. এনামুল হক, ম্যানেজার (সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং) সুমন রঞ্জন ভৌমিক প্রমুখ। চুক্তি অনুসারে ইডিইউর শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারী প্রত্যেকে নিজেদের এবং পরিবার তথা বাবা-মা, স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানদের জন্য এপিক হেলথ কেয়ারে সব ধরনের প্যাথলজিকাল টেস্ট, মাইক্রোবায়োলজি ও হরমোন টেস্ট, ইসিজি, ডিএমডি, ইটিটি, ওপিজি, ডেন্টাল এক্সরে, এন্ডোসকপি, কোলোনোসকপি, ইউএসজি কালার ডোপলার, ইমেজিং টেস্ট, ডোপ টেস্ট, এমআরআই, সিটি স্ক্যান, ফিজিওথেরাপিসহ আরো নানা ধরনের টেস্টের জন্য বিভিন্ন হারে ছাড় রয়েছে।
ইডিইউর প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, করোনাকালে প্রত্যেকের কথা বিবেচনায় স্বাস্থ্যসুরক্ষাসহ নানা ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার চেষ্টা আমরা করেছি। এরই ধারাবাহিকতায় এবার এপিক হেলথ কেয়ারের চুক্তিবদ্ধ হয়েছি আমরা। এতে করে ইডিইউ পরিবারের প্রতিটি সদস্য ও তাদের কাছের মানুষেরা এ কঠিন সময়ে আরো সহজে চিকিৎসা সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে।
এপিক হেলথ কেয়ারের পক্ষে এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং) টিএম হান্নান বলেন, চট্টগ্রামের উচ্চশিক্ষা অঙ্গনে এক উল্লেখযোগ্য নাম ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি