ঠাকুরগাঁওয়ে পাকাঁ রাস্তা কাজে ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ এলাকাবাসীর

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে পাকাঁ রাস্তা কাজে ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। নজরদারি না থাকায় অনেকটা তরিঘরি করেই কাজ শেষ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। তবে অনিয়মের কথা জানতে চাইলে সংশ্লিস্ট ইঞ্জিনিয়ার জানান বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। রোববার জেলা শহরের নরেশ চৌহান সড়কে নতুন করে রাস্তা পাকাঁকরণে অনিয়মের অভিযোগ তুলে স্থানীয় পৌরবাসি।
রাস্তা পাকাঁকরণ দেখভালে পৌরসভা কর্তৃপক্ষের নিয়োগকৃত সাবষ্টেন ইঞ্জিনিয়ার ও দেলোয়ার হোসেন জানান, জেলা শহরের ভেতরে ৮-১০ টি রাস্তার কাজ চলমান রয়েছে। যা সর্বমোট ৮০০ মিটার। যার ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২ কোটি টাকা।
স্থানীয়দের অভিযোগ রাস্তা পাকাঁকরণে জেলা শহরের সিএমআইয়ুব বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশ থেকে নরেশ চৌহান সড়কের হানিফ কাউন্টার পর্যন্ত কাজে দেখা দেয় অনিয়ম। ঠিকাদারের লোকজন দেধারছে কাজ করে যাচ্ছেন। রাস্তায় ধুলোবালির উপড়ই করছে কার্পেটিং। রাস্তাটি পুনরায় নতুন করে করা হলেও কার্পেটিংয়ের আগে ধুলোবালি পরিস্কার না করার পাশাপাশি ইটের খোয়ার উপর বিটুমিন না দিয়েই কার্পেটিং করছেন। যা বৃস্টি হলেই দ্রুত সময়ের মধ্যে রাস্তা ক্ষতিগ্রস্থ হবে। আর পাথর বালি, ইটের খোয়া মিশ্রিত কার্পেটিংয়ের জন্য ব্যবহার করা পিচের পরিমান অনেক কম হচ্ছে। যারা তদারকির দায়িত্বে রয়েছেন তারা ঠিকমত দেখছেন না বলেই ঠিকাদার তার ইচ্ছেমত কাজ করে যাচ্ছেন। এতে সরকারের টাকা জলে ভাসার মত অবস্থা। আর কার্পেটিয়ের থিকনেসও কম দেয়া হচ্ছে। আমরা পৌরবাসি মনে দীর্ঘদিন পরে রাস্তাগুলোর কাজ হচ্ছে। এমন নিম্ন মানের কাজ হলে কিছু দিনের মধ্যে আবারো নষ্টের শংকা রয়েছে। তাই উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে পুনরায় এ রাস্তাটিসহ বাকি রাস্তারগুলোর কাজ ভালভাবে করতে নির্দেশ দিবেন।
ঠিকাদার আইনাল হকের ফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ার বেলাল হোসেন জানান, অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন দু’ঘন্টা দারিয়ে থেকে কাজ তদারকি করেছি। দুপুরে খাওয়ার পর আবার কাজ শুরু করেছে হয়তো। আমি বাইরে আছি আমার পরিবর্তে সেখানে অন্য কাউকে পাঠানোর ব্যবস্থা করছি কাজ তদারকির জন্য। আর অভিযোগের বিষয়গুলোর মধ্যে কার্পেটিং করার আগে কেন ধুলোবালি পরিস্কার ও বিটুমিন দেয়া হচ্ছে না। এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ধুলোবালি পরিস্কারের নির্দেশনা দেয়া আছে ঠিকাদারকে আর কার্পেটিংয়ের আগে বিটুমিন দেয়ার এ রাস্তায় নিয়ম নেই তবে প্রাইমকোট মারা হয়েছে। আর বাকি অভিযোগের প্রশ্নে অপারগতা প্রকাশ করেন।