লকডাউন মানাতে ১০ ম্যাজিস্ট্রেটের অভিযানে,৪১ হাজার টাকা জরিমানা

করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে নগরজুড়ে অভিযান অব্যাহত রেখেছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।তার ধারাবাহিকতায় আজও নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালান ১০ ম্যাজিস্ট্রেট।এ সময় ৪১ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।একই সঙ্গে সচেতনতার জন্য মাস্কও বিতরণ করা হয়।বৃহস্পতিবার নগরের পাহাড়তলী, হালিশহর, আকবরশাহ, পতেঙ্গা, ইপিজেড, বন্দর, পাঁচলাইশ, বাকলিয়া, চকবাজার, খুলশী, বায়েজিদ, চান্দগাও, কোতোয়ালী, সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানান, লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সোহেল রানা পাহাড়তলী, হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় ৬টি মামলায় ৩ হাজার ১০০ টাকা এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইনামুল হাছান ২টি মামলায় ৭০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

নগরের পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় অভিযান চালান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এহসান মুরাদ। এ সময় ৫টি মামলায় ৪ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন তিনি। পাশাপাশি একই এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী ৩টি মামলায় ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

একই সময়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী পাঁচলাইশ, বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় ১২টি মামলায় ১৭ হাজার টাকা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ ৪টি মামলায় ৩ হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এছাড়া, নগরের খুলশী, বায়েজিদ ও চান্দগাঁও এলাকায় ৬টি মামলায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ। পাশাপাশি একই এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া ইয়াসমিন ১টি মামলায় ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন।

এদিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন কোতোয়ালী, সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় ৩টি মামলায় ১ হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোনিয়া হক ওই এলাকায় সরকারি আদেশ মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন এবং মাস্ক বিতরণ করেন।

এছাড়াও লকডাউনের বিধিনিষেধ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এদিন সন্ধ্যার পর থেকে আরও দুই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক ও আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক বলেন, ‘কঠোর লকডাউন বাস্তবায়ন ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে আজ নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি সচেতনতার জন্য মাস্কও বিতরণ করা হয়েছে।’

জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।