চট্টগ্রামে নিত্যপণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখাতে চসিকের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান

বিপ্লব সেন প্রতিবেদনঃ আজ সোমবার(১৯ এপ্রিল) চট্টগ্রাম জেলা ও নগরীতে নিত্যপণ্যের বাজার অস্থির হয়ে উঠেছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানেও সুফল মিলছে না। প্রচুর সরবরাহ থাকা সত্ত্বেও কাঁচা বাজারসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম হু হু করে বেড়ে চলেছে। অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ী চক্র পণ্যের দাম ইচ্ছেমতো বাড়াচ্ছে। এদিকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন পাইকারী ও খুচরা বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্যের মূল্য লাগামহীনভাবে বেড়ে যাওয়ায় চসিকের ভ্রাম্যমাণ আদালত বাজার মনিটরিং শুরু করেছে। সকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগরীর কর্নেল হাট কাঁচা বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে ম্যাজিস্ট্রেট মুদি, মাংস, মরগী, মাছ ও ফ্রুটস এর দোকানে প্রদর্শিত স্থানে মূল্য তালিকা প্রত্যক্ষ করেন। সে সময় দৃম্যমান স্থানে মূল্য তালিকা না টাঙ্গানো দায়ে ৯জন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু পূর্বক ৯শত টাকা জরিমান করেন। এছাড়াও কোভিড ১৯বিস্তার রোধে কর্নেল হাট, এ.কে খান, অলংকার মোড় ও পাহাড়তলী আমবাগান এলাকায় জনসাধারণকে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সচেতন করে এবং মাস্ক বিতরণ করা হয়। এর আগে গত ‘কাল চট্রগ্রাম নগরীর চকবাজারে কাঁচা বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত সতর্ক করে দেন ।চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নিয়মিত বাজার দর স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে নগরীর কাঁচা বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হবে বলে জানান।। ক্রেতারা জানান অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ী চক্র পণ্যের দাম ইচ্ছেমতো বাড়াচ্ছে। নিয়মিত বাজার মনিটরিং না থাকায় পণ্যমূল্য অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে বলে বাজার সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। নগরীর কাজির দেউড়ি বাজার, রেয়াজউদ্দিন বাজার, চকবাজার, কর্ণফুলী বাজার, স্টিল মিল বাজার, ইপিজেড বাজার, পাহাড়তলী বাজার, আতুরার ডিপো বাজার, ফইল্যাতলী বাজার, ষোলশহর কর্ণফুলী কমপ্লেক্স বাজার, বিবিরহাট বাজার, কর্ণেলহাট বাজারসহ নগরীর বাজারগুলোতে নিত্যপণ্যের দাম আকাশচুম্বী। বিশেষ করে চাকরিজীবীসহ স্বল্প আয়ের মানুষের মধ্যে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় নাভিশ্বাস উঠেছে। খুচরা ও পাইকারী বাজারের মধ্যে ব্যাপক ফারাক। নেই কোন মূল্যতালিকা।