ব্রেকিং নিউজ »বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে কৌশলে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে আরও কঠোর হয়েছে সরকার। বাড়ানো হয়েছে সাধারণ ছুটির মেয়াদ। গণপরিবহন তো বটেই, নিজস্ব পরিবহন চলাচলেও বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। পাশাপাশি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঢাকায় প্রবেশ ও বের হওয়াও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তারপরেও অবশ্য বন্ধ হয়নি মানুষের রাজধানীতে প্রবেশ ও বের হওয়ার বিষয়টি।
গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও পণ্যবাহী গাড়ির পাশাপাশি চলাচল বেড়েছে অ্যাম্বুল্যান্স ও ব্যক্তিগত যানের। ঈদ সামনে রেখে রাজধানী ঢাকায় ঢুকতে ও বের হতে কড়াকড়ি আরোপের কথা বলেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। কিন্তু নানা ফন্দিতে ঢাকা ছাড়ছে ‘কৌশলী’ মানুষ। বেশি টাকা খরচ হলেও ভেঙে ভেঙে অটোরিকশা, মহেন্দ্র, ট্রাক, পিকআপ ভ্যান অ্যাম্বুল্যান্সসহ নানা যানবাহনে মানুষ ছুটছে। তবে যাদের সামর্থ্য আছে, তাদের অনেকে ‘অসুস্থতা’র ছুতায় অ্যাম্বুল্যান্স ভাড়া করে ঢাকা ছাড়ছে। বর্তমানে প্রায় চার গুণ ভাড়া গুনতে হচ্ছে।লকডাউন উপেক্ষা করে ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিয়ে পণ্যবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহনে ঢাকা থেকে কৌশলে বিভিন্ন জেলায় ঢুকছে মানুষ। তবে গণমাধ্যম দেখা মাত্র মানুষজন দেখতে পেলে অনেক সময় ফিরিয়েও দিচ্ছে। মহাসড়কে পণ্যবাহী ট্রাকে ৩০ যাত্রী শহরে ঢোকার চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয় যুবকরা পিছু নিয়ে ট্রাকটি জব্দ করে। পরে ট্রাকের পেছনে ত্রিপলের ভেতর ও ট্রাকচালকের স্থান থেকে বেরিয়ে আসে ৩০ যাত্রী। যাত্রীরা সবাই ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁওয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল।শনিবার ভোর ৫টায় রাজধানীর মিরপুর থেকে চাঁদপুরের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন মো. খোকন, তাঁদের শিশুসন্তানসহ পরিবারে ৪জন। কখনো ব্যাটারিচালিত রিকশায়, কখনো অটোরিকশায় আবার কখনো হেঁটে বিকেল নাগাদ ফেরেন গ্রামের বাড়ি। তবে গ্রামে বাইরে থেকে মানুষ এসেছে, এমন সংবাদ পৌঁছে যায় স্বাস্থ্য বিভাগে। তাই করোনা পরিস্থিতিতে তাঁদের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে সেখানে যান স্বাস্থ্যকর্মীরা।শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে ঘরমুখী যাত্রীদের ভিড় বাড়ছেই। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ঢাকা থেকে বিভিন্ন পরিবহনে শিমুলিয়া ঘাটে এসে ফেরিতে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছে তারা। তবে শনিবার শিমুলিয়া ঘাটে যেতে যাত্রীদের অনেক দুর্ভোগের মুখে পড়তে হয়। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বেশ কয়েকটি চেকপোস্টে যাত্রীদের নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। অনেক যানবাহনকে ফিরিয়েও দিয়েছে পুলিশ। তার পরও গাদাগাদি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়নি।

বিস্তারিত আসছে