সারাদেশে লকডাউনের নবম দিনে (ডিএমপি)গ্রেপ্তার ৫৮৫

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারাদেশে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন চলছে। আর এই লকডাউনে যারা অযথা বাইরে ঘোরাফেরা করছে সরকারি সংস্থা তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

কঠোর লকডাউনের নবম দিনে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বাইরে বের হয়ে ঘোরাঘুরির অপরাধে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন ৫৮৫ জন।

শুক্রবার (৯ জুলাই) লকডাউনের নবম দিনে অভিযানে এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয় ডিএমপির আটটি বিভাগ।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম।

বলেন, লকডাউনের নবম দিনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডিএমপির ৮টি বিভাগের রমনা, লালবাগ, মতিঝিল, ওয়ারী, তেজগাঁও, মিরপুর, গুলশান ও উত্তরা এলাকায় সরকারি নিয়ম অমান্য করে বাইরে বের হওয়ায় ৫৮৫ জনকে গ্রেপ্তার করে।

তিনি বলেন, এছাড়া লকডাউনে সড়কে যানবাহন নিয়ে বের হওয়ায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ট্রাফিক বিভাগ ৪১৪টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করেছে ৮ লক্ষ ৯২ হাজার ৫শত টাকা।

তিনি আরো বলেন, সরকার করোনার সংক্রমণরোধে চলমান বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে আজ নবম দিনেও রাজধানীজুড়েই সক্রিয় ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। রাজধানীতে সরকারি বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে অকারণে ও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হওয়ায় এবং লকডাউনের মধ্যে প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় মোবাইল কোর্টে ১২৯ জনকে ও প্রতিষ্ঠানকে ১ লক্ষ ৫৬ হাজার ৭শত ৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জানা যায়, মোবাইল কোর্টে ও ডিএমপি ট্রাফিক কর্তৃক মোট জরিমানা করা হয়েছে ১০ লক্ষ ৪৯ হাজার ২শত ৫০ টাকা।