ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জে ব্যবসায়ী হত্যার অভিযোগে তিনজন গ্রেফতার

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে ব্যবসায়ী ইসাহাক আলী হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার হয়েছে । সেই সাথে হত্যার কাজে ব্যবহৃত বেশকিছু দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ।
র‍্যাব-১৩ দিনাজপুর ও পীরগঞ্জ থানার পুলিশ জানায়, ঈদের আগের দিন ভোরে জাবরহাট বাজারের ব্যবসায়ী ইসাহাক আলীকে গলা কেটে হত্যার পর ফেলে রেখে পালিয়ে যায় দুবৃত্তরা। পরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। হত্যাকারিদের ধরতে পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঘটনার অনুসন্ধান শুরু করে। ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া একটি জুতার সূত্র ধরে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়। এক পর্যায়ে জাবরহাট এলাকার সন্দেহভাজন নয়ন নামে একজনকে রাজধানীর ধানমন্ডি থেকে আটক করে আইনশৃংখলা বাহিনী।
আটককৃত ওই যুবককের দেয়া তথ্য মতে জাবরহাট ইউনিয়নের মেজবাউল ও আরিফুল ইসলাম নামে আরও দুজনকে ২৮ জুলাই ২০২১ তারিখ রাতে দিনাজপুর জেলার কতোয়ালি থানাধীন খানপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র‍্যাব-১৩ দিনাজপুর। পীরগঞ্জ থানার ওসি প্রদীপ কুমার জানান,তাদের দেয়া তথ্য মোতাবেক বৃহস্পতিবার দুপুরে আটক আরিফুলকে সাথে নিয়ে তার দক্ষিণ মাধবপুরের বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় তার বাড়ির পাশের খড়ের স্তুপ থেকে হত্যার কাজে ব্যবহৃত একটি চাকু উদ্ধার করা হয়।
ওসি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা স্বীকার করে, ওই ব্যবসায়ীর কাছে অনেক টাকা ছিল। সেই টাকা হাতিয়ে নিতেই পরিকল্পনা করে। ব্যবসায়ী ইসাহাক রাতে বাড়ি ফেরার পথে তার পথরোধ করে হত্যা করে ১লাখ ৩৭ হাজার টাকা নিয়ে যায় আটককৃতরা। পরে একটি বাগানে বসে সে টাকা ভাগ- বাটোয়ারা করে । এ হত্যাকান্ডের সাথে আরও ১/২ জন জড়িত থাকার কথাও স্বীকার করেছে তারা। তাদেরও গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।
আটক নয়ন উপজেলার জাবরহাট এলাকার একরামুল হকের, মেজবাউল চন্দ্র রিয়া বিশমাইল গ্রামের মকলেশুর রহমানের এবং আরিফুল দক্ষিণ মাধবপুর গ্রামের আজহারুলের ছেলে বলে জানায় পুলিশ।
উল্লেখ্য, গত ১৯ জুলাই রাতে জাবরহাট বাজারের নিজ দোকান বন্ধ করে করনাই পশ্চিমপাড়া নিজ বাড়ি যাওয়ার পথে হত্যাকান্ডের শিকার হয় ব্যবসায়ী ইসাহাক আলী।