জন্ম সনদ পেতে এতো হয়রানি হাঁসফাঁস অবস্থা !

জন্ম সনদ পেতে এতো হয়রানি হাঁসফাঁস অবস্থা, !

বিপ্লব সেন ডেক্সঃ জন্ম নিবন্ধনের নতুন শর্তে ভোগান্তিতে আক্ষেপ করে বলেন জন্ম নিবন্ধনের আরেক নাম ভোগান্তি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি,পাসপোর্ট, বিবাহ নিবন্ধন, মৃত্যু সনদ, জমি রেজিস্ট্রেশনসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ কাজে সব বয়সের জন্ম সনদ প্রয়োজন। তবে নতুন করে জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে অনেককেই ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। সনদ পেতে জুড়ে দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি শর্ত। এসব শর্ত পূরণ করতে গিয়ে অনেকেরই হাঁসফাঁস অবস্থা, যেন জন্ম নিবন্ধনের আরেক নাম ভোগান্তি চলতি বছরের ১ জানুয়ারি নতুন নিয়ম কার্যকর হওয়ায় স্কুলে ভর্তির জন্য সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করাতে গিয়ে আটকা পড়েন অনেক বাবা-মা। এর আগে মা-বাবার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়েই যে কারও জন্ম নিবন্ধন করা যেত। কিন্তু নতুন নিয়মে আগে বাবা-মায়ের জন্ম নিবন্ধন করতে হয়, এরপর পাওয়া যায় সন্তানের জন্ম সনদ। ওয়ার্ড অফিসে গিয়ে নাগরিকদের ভোগান্তির কথা জানা যায়। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করেও অনেকেই সনদ না নিয়ে ফিরে যেতে হয়। অনেকেই আবার অভিযোগ করেছেন মাসের পর মাস ঘুরেও মিলছে না কাঙ্খিত জন্ম সনদ। এ সনদ পেতে ভোগান্তি পেতে হচ্ছে সব শ্রেণীর মানুষের।
এর মধ্যে সন্তানদের স্কুলে ভর্তির জন্য জন্ম নিবন্ধন করাতে গিয়ে বেশি ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে বাবা-মায়েদের।
আগের পুরনো নিয়ম থেকে জন্ম নিবন্ধন ব্যবস্থা নতুন নিয়মে হয়েছে অনলাইনে । আর এই ব্যবস্থায় দেখা দিয়েছে নানা জটিলতা, নতুন কিছু নিয়মের সঙ্গে সার্ভার জনিত সমস্যাও যোগ হয়েছে। ফলে দেশের অনেক স্থানেই জন্ম নিবন্ধন করতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নাগরিকদের। মেয়ের জন্য জন্ম নিবন্ধন করাতে গিয়েছিলাম আরো অনেক মা আগে। সেখানে গিয়ে জানতে পারি স্বামী-স্ত্রী দুজনেরও জন্ম নিবন্ধন করাতে হবে। সেটা করতে গিয়ে তিনি আরেক সমস্যায় পড়েছেন। এখন আমাদের টা করতে হচ্ছে। জন্ম নিবন্ধনের এই প্রেসেসিং অনেক বেশি ভোগান্তির।

তিনি বলেন, বাচ্চার জন্ম নিবন্ধনের জন্য আমার জন্ম নিবন্ধন চাচ্ছে। আমার জন্ম নিবন্ধনের জন্য যখন আমি আবেদন করতে চাচ্ছি, সেখানে আমার বাবা-মার জন্মনিবন্ধন ও দিতে হবে। আমাদের মতো মানুষের এমন হলে সাধারণ জনগণের তো ভোগান্তির শেষ নেই। এটা আরো সহজভাবে করা যেতো। এখনো তার সন্তানের জন্ম নিবন্ধন পাননি বলেও জানান তিনি।