বর্ণাঢ্য আয়োজনে চট্টলবীর মহিউদ্দিন চৌধুরীর জন্মদিন উদযাপন

বর্ণাঢ্য আয়োজনে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর জন্মদিন উদযাপন
বর্ণাঢ্য আয়োজনে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ৭৭ তম জন্মদিন পালন করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক জহরলাল হাজারী। এ উপলক্ষে র‌্যালি, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।
বুধবার (০১ ডিসেম্বর) বিকেল তিনটায় নগরীর হাজারী লেইন থেকে কাউন্সিলর জহরলাল হাজারীর নেতৃত্বে র্যালি বের হয়। এতে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের স্থানীয় নেতাকর্মীরা অংশ নেন। র‌্যালি লালদিঘীর পাড় ঘুরে আবারও হাজারী লেইনে এসে শেষ হয়। এরপর হাজারী লেইনের শিবমন্দির চত্বরে স্থাপিত মঞ্চে কেক কাটা ও আলোচনা অনুষ্ঠান হয়।
আলোচনা সভায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের আন্দরকিল্লা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহরলাল হাজারীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন চসিকের কাউন্সিলর পুলক খাস্তগীর, কাউন্সিলর আব্দুস সালাম মাসুম, কাউন্সিলর রুমকি সেনগুপ্তা, কাউন্সিলর আনজুমান আরা ও কাউন্সিলর শাহীনা আক্তার রোজী। এসময় আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় বক্তারা বলেন, ‘এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী পাকিস্তান আমলের উত্তাল সময়ের গর্ভে জন্ম নেওয়া একজন রাজনৈতিক সংগঠক। ছাত্র রাজনীতির পথ ধরে লড়াই-সংগ্রামে অংশ নিয়ে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য অস্ত্র হাতে নিয়ে মরণপণ যুদ্ধ করে তিনি নিজেকে একজন রাজনীতিবিদে পরিণত করেছিলেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহধন্য ছিলেন তিনি। বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নৃশংসভাবে হত্যার পর তিনি তার সঙ্গীসাথীদের নিয়ে হাতে অস্ত্র তুলে নিয়ে প্রতিবাদ-প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন। এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ইতিহাসের পাতায় অক্ষয় হয়ে আছেন, থাকবেন। তিনি নিজেই একটি কালজয়ী ইতিহাস।’
বক্তারা আরও বলেন, ‘এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী সারাজীবন মানুষের জন্য রাজনীতি করেছেন। মানুষের পাশে থেকেছেন, যে কোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে মানুষের পাশে ছুটে গেছেন। এজন্য মানুষ ভালোবাসে তাঁকে তিনবার মেয়র নির্বাচিত করেছেন। তিনি একজন সফল জনপ্রতিনিধি ছিলেন। তাঁর বিজয়ের ইতিহাসও গৌরবোজ্জ্বল, তাঁর বিজয় তৎকালীন কঠিন সময়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উজ্জীবীত করেছিল। জীবনের শেষদিন পর্যন্ত তিনি চট্টগ্রামের মানুষের জন্য কথা বলে গেছেন, অধিকার আদায়ের আন্দোলন করেছেন। আজ এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী নেই। তাঁর কাছ থেকে আমরা কর্মের দীক্ষা নিয়েছি, মানুষের পাশে থাকার রাজনৈতিক শিক্ষা পেয়েছি। সেই শিক্ষা নিয়ে আমরা নেতাকর্মীদের নিয়ে পথ চলব।’