প্লেনের চাকায় চড়ে দ. আফ্রিকা থেকে আমস্টারডাম

প্লেনের চাকায় চড়ে দ. আফ্রিকা থেকে আমস্টারডাম
নেদারল্যান্ডসের পুলিশ বলেছে, তারা দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আমস্টারডামে অবতরণ করা একটি প্লেনের চাকার অংশে এক ব্যক্তিকে জীবিত অবস্থায় পেয়েছে। বেশি উচ্চতায় অনেক ঠাণ্ডা এবং কম অক্সিজেনের কারণে দীর্ঘ ফ্লাইটে চাকার খোপে চড়া লোকের পক্ষে বেঁচে থাকা খুবই অস্বাভাবিক ঘটনা। জোহানেসবার্গ থেকে আমস্টারডামের শিফল বিমানবন্দর পর্যন্ত ফ্লাইট সময় প্রায় ১১ ঘণ্টা। কার্গো প্লেনটি পথে কেনিয়ার নাইরোবিতে থেমেছিল বলে মনে করা হয়। রয়্যাল ডাচ মিলিটারি পুলিশের মুখপাত্র জোয়ানা হেলমন্ডস বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ‘বিমানের নাকের চাকার অংশে ওই ব্যক্তিকে জীবিত পাওয়া গেছে। তাকে স্থিতিশীল অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। লোকটির এখনো বেঁচে থাকা খুব লক্ষ্যণীয় ব্যাপার। ’প্লেনে মাল বহনকারী কম্পানি কার্গোলাক্সের একজন মুখপাত্র নিশ্চিত করেছেন, চাকায় চড়া লোকটি কার্গোলাক্স ইতালিয়া পরিচালিত একটি ফ্লাইটে উঠেছিলেন। ফ্লাইটের তথ্য অনুসারে, রোববার জোহানেসবার্গ থেকে শিফল যাওয়ার একমাত্র কার্গোলাক্স মালবাহী ফ্লাইটটিও নাইরোবিতে থামে। ওই ব্যক্তি দক্ষিণ আফ্রিকা না কেনিয়ায থেকে প্লেনের চাকায় উঠে বসেছিলেন তা জানা যায়নি।