রোজায় প্রতিদিন ৬ ঘণ্টা সিএনজি স্টেশনে গ্যাস বন্ধ থাকবে

রোজায় প্রতিদিন ৬ ঘণ্টা সিএনজি স্টেশনে গ্যাস বন্ধ থাকবে
আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে বিদ্যুৎ উৎপাদনে গ্যাসের সরবরাহ বাড়াতে ‘পিক আওয়ারে’ দেশের সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো বন্ধ রাখার সময় আরও ১ ঘণ্টা বাড়িয়েছে সরকার।

বুধবার (৩০ মার্চ) পেট্রোবাংলার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রোজার শুরু থেকে ঈদুল ফিতর পর্যন্ত বিকেল ৫টা থেকে রাত ১১টা, অর্থাৎ প্রতিদিন ৬ ঘণ্টা সব সিএনজি স্টেশনে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এতদিন সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত বন্ধ রাখা হতো। গত ১ মার্চ থেকে এ নিয়ম চলছিল। এখন তা আরও ১ ঘণ্টা বাড়ল। সাময়িক এ অসুবিধার জন্য পেট্রোবাংলার পক্ষ থেকে ‘আন্তরিক দুঃখ’ প্রকাশ করা হয়েছে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

পাশাপাশি এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে গ্যাস বিতরণ কোম্পানির ভিজিল্যান্স টিম নিয়মিত মনিটরিং করবে এবং সিদ্ধান্ত না মানলে সংশ্লিষ্ট সিএনজি স্টেশনের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারও করা হয়েছে।

সার উপাদন ছাড়াও গরমের মৌসুম চলে আসায় বিদ্যুৎ উৎপাদনে গ্যাসের চাহিদা বাড়ায় সরবরাহ ঠিক রাখতে পেট্রোবাংলাকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

পেট্রোবাংলার হিসাবে গতকাল মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) আমদানি ও দেশের উৎপাদন মিলিয়ে গ্রাহককে মোট ২ হাজার ৯৮৬ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে।

এর মধ্যে বিদ্যুতের জন্য ২ হাজার ২৫২ মিলিয়ন ঘনফুট চাহিদার বিপরীতে সরবরাহ করা হয়েছে ১ হাজার ১১১ মিলিয়ন ঘনফুট। সার উৎপাদনে ৩১৬ মিলিয়ন ঘনফুট চাহিদার বিপরীতে মাত্র ১৪৩ মিলিয়ন ঘনফুট দিতে পেরেছে পেট্রোবাংলা।