বর্ণাঢ্য আয়োজনে চলছে বর্ষ বরণে শেষ মুহূর্তের কাজ

বর্ণাঢ্য আয়োজনে চলছে বর্ষ বরণে শেষ মুহূর্তের কাজ
দরজায় কড়া নাড়ছে ১৪২৯। চৈত্রের শেষ ১ দিন গড়ালেই নববর্ষ। ‘নির্মল কর, মঙ্গল করে মলিন মর্ম মুছায়ে’—বিখ্যাত সংগীত পরিচালক রজনীকান্ত সেনের লেখা গানের এই অংশটুকু মূল প্রতিপাদ্য করে বরণ করে নেয়া হবে নববর্ষ ১৪২৯-কে।যাপিত জীবনের সকল জটিলতা, জরা-ক্লান্তি, অশুভ’র বিদায় ও জাতির সামগ্রিক মঙ্গল কামনায় নগরে বের হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। দীর্ঘ দুই বছরের করোনার প্রকোপ ও স্থবিরতা কাটিয়ে নববর্ষ মঙ্গলময় হওয়ার প্রত্যাশায় এই প্রতিপাদ্য। এদিকে বর্ষবরণকে কেন্দ্র করে নতুন রূপে ঝলমলে চারুকলা। পুরোদমে চলছে প্রস্তুতি।সরজমিন দেখা যায়, বর্ষবরণের ও মঙ্গল শোভাযাত্রা সুন্দরভাবে সম্পন্নে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীরা মাটির সরায় রঙ তুলিতে ফুল, লতা-পাতা, মাছ সহ ফুটিয়ে তুলছেন হরেক রকমের প্রতিকৃতি। ঢাকা ও চট্রগ্রাম সরেজমিনে গিয়ে দেখা চারুকলার সামনে শিক্ষার্থীরা আঁকছেন বিভিন্ন ধরণের ছবি। মাটির সরায় প্রস্তুত করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের নকশা। প্রস্তুত করা হচ্ছে বাহারি রঙের মুখোশ। নববর্ষের জন্য বিক্রি করা হচ্ছে প্রস্তুতকৃত এই শিল্পকর্মগুলো। দর্শনার্থীরা আসছেন, দেখছেন, অনেকে কিনছেনও বটে। এছাড়াও লিচুতলায় বানানো হচ্ছে বিশাল ঘোড়া ও টেপাপুতুলের কাঠামো।আগামিকাল বৃহস্পতিবার নগরীর ডিসি হিলে সম্মিলিত পহেলা বৈশাখ উদ্যাপন পরিষদ, সিআরবি শিরীষ তলায় নববর্ষ উদ্যাপন পরিষদ চট্টগ্রাম, জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে জেলা প্রশাসন এবং বাদশা মিয়া রোডের ক্যাম্পাসে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউট বর্ষবরণের আয়োজন করেছে। ডিসি হিল প্রাঙ্গণে সম্মিলিত পহেলা বৈশাখ উদ্যাপন পরিষদের বর্ষবরণের আয়োজন শুরু হবে সকাল পৌনে ৭ টায়। এম এম আলী রোডে জেলা শিল্পকলা একাডেমি থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হবে।বাঙালির চিরায়ত সংস্কৃতির প্রধান সর্বজনীন উৎসব নববর্ষ। এভাবে এই আয়োজন সংকুচিত করা মানে সমাজকে পিছিয়ে দেওয়ার লক্ষণ’।সংস্কৃতি কর্মীরা বলেন, ‘এবারই প্রথম নয়। এর আগেও নিরাপত্তার কথা বলে বিভিন্ন সময় বর্ষবরণের আয়োজনকে সীমিত করা হয়েছে। এগুলো সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চার উপর একধরণের বাধা। সমাজে এর নেতিবাচক প্রভাব পরবে। বাঙালির চিরায়ত সংস্কৃতির প্রধান সর্বজনীন উৎসব নববর্ষ। এভাবে এই আয়োজন সংকুচিত করা মানে সমাজকে পিছিয়ে দেওয়ার লক্ষণ’।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রণব মিত্র চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের মঙ্গল শোভাযাত্রার সব প্রস্তুতি শেষ । বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় শোভাযাত্রা শুরু হবে। তবে এবারের বর্ষ বিদায় অনুষ্ঠানে কোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হচ্ছে না।