আবদুস সালাম আবারও প্রশাসকের দায়িত্বে

আবদুস সালাম আবারও প্রশাসকের দায়িত্বে
পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ , বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি জননেতা এম এ সালামকে আবারও তৃতীয় মেয়াদে চট্টগ্রাম প্রশাসক পদে নিয়োগ দিয়েছে সরকার।
সরকার সারা দেশে জেলা পরিষদে প্রশাসক নিয়োগ দিয়েছে। তাদের নিয়োগের প্রজ্ঞাপন আজ
বুধবার (২৭ এপ্রিল) স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়

বিষয়টি নিশ্চিত করে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত জেলা পরিষদের প্রশাসক সালাম বলেন, ‘ছয় মাসের জন্য আমাকে সরকার প্রশাসক পদে নিয়োগ দিয়েছেন। এই সময়ের মধ্যে নির্বাচন হবে। তখন যিনি প্রার্থী হয়ে জয়ী হবেন তার কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করব।’

এর আগে গত ১৭ এপ্রিল মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় চট্টগ্রামসহ দেশের ৬১টি জেলা পরিষদ বিলুপ্ত করেছিল সরকার। বিলুপ্ত করা জেলা পরিষদগুলোতে প্রশাসক নিয়োগের আগ পর্যন্ত প্রশাসনিক ও আর্থিক ক্ষমতা পরিচালনার জন্য পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) বা ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম ২০১৭ সাল থেকে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন।

এর আগে গত ১৭ এপ্রিল মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় চট্টগ্রামসহ দেশের ৬১টি জেলা পরিষদ বিলুপ্ত করেছিল সরকার। বিলুপ্ত করা জেলা পরিষদগুলোতে প্রশাসক নিয়োগের আগ পর্যন্ত প্রশাসনিক ও আর্থিক ক্ষমতা পরিচালনার জন্য পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) বা ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।
উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম ২০১৭ সাল থেকে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। দেশের ৬১ জেলায় ২০১৬ সালের ২৮ ডিসেম্বর প্রথমবারের মতো জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়। ২০১৭ সালের ১১ জানুয়ারি নির্বাচিতরা শপথ নেন। ওই বছরের জানুয়ারি মাসেই জেলা পরিষদগুলোর প্রথম বৈঠক হয়। ফলে পরিষদের ৫ বছরের মেয়াদ গত জানুয়ারিতেই শেষ হয়েছে। জেলা পরিষদ আইন অনুযায়ী, পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিন আগে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকে জানা গেছে, নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন জেলা পরিষদ গঠন না হওয়া পর্যন্ত প্রশাসকেরাই দায়িত্ব পালন করবেন। তবে যাদের প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে, মূলত তারাই ভবিষ্যতে পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে লড়বেন। বিষয়টি মাথায় রেখে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।