চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন

শনিবার (২৮ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পতাকা উত্তোলন, বেলুন ও শান্তির প্রতীক পয়ারা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। সম্মেলনেরপ্রধানবক্তা হিসেবে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল। বিশেষ বক্তা হিসেবে যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম বক্তব্য রখেন । বক্তার বক্তব্যে বলেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মো.মাইনুল হোসেন খান নিখিলের হাতে যুবলীগের কোন ধরনের কমিটি বাণিজ্য হবে না মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী উপ প্রচার সম্পাদক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম-১৫ আসনের সংসদ সদস্য মো.নজরুল ইসলাম চৌধুরী, চট্টগ্রাম-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো.সাইফুর রহমান সোহাগ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মীর মো.মহি উদ্দীন, উপ ক্রীড়া সম্পাদক মো.আব্দুর রহমান, সহ-সম্পাদক মো.নাসির উদ্দীন মিন্টু ও কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নিয়াজ মোর্শেদ এলিট। কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল আরো বলেন ক্যাসিনো ও কমিটি বাণিজ্য করবো না। আমাদের হাত দিয়ে মাদক ব্যবসায়ী ও চাঁদাবাজদের নাম আসবে না। দুর্নীতিবাজ ও বিপথগামীরা যুবলীগে আসতে পারবে না। সৎ ও পরিচ্ছন্নদের দিয়ে যুবলীগের কমিটি হবে।
নির্বাচন নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে জানিয়ে নিখিল বলেন, যুবলীগকে সজাগ থাকতে হবে। যেখানে বিএনপি ও জামায়াত ষড়যন্ত্র করবে সেখানে যুবলীগ মোকাবিলা করবে। সোনার বাংলাদেশ গড়তে হলে সোনার মানুষ চাই। সেই সোনার মানুষ যুবলীগ। সেটা দক্ষিণ জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে দেখতে পাই। শেখ হাসিনা কাজ করছেন, আল্লাহতায়ালার সন্তুষ্টি অর্জন ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন। প্রতিটি সংগঠনে অনুপ্রবেশকারী প্রবেশ করছে, আমাদের সেদিকে সজাগ থাকতে হবে।