এক দিন… তারপরই বিশ্বকাপ

ডেস্ক
প্রদীপ জ্বালানোর আগে সলতে পাকানোর পর্ব থাকে। ম্যাচ শুরুর আগে দলগুলোর মাঠে পৌঁছানোর মতো। কাতার বিশ্বকাপের সলতে পাকানোর পর্ব অনেক আগেই শুরু হয়েছে। স্টেডিয়াম নির্মাণ থেকে ধরলে প্রায় এক যুগ। এরপর ক্যালেন্ডারের পাতা থেকে আলগোছে পা ফেলে ফেলে দিন-মাস-বছর চলে গেছে। এভাবেই সময়ের চলে যাওয়ার সরণি বেয়ে এগিয়ে এসেছে বিশ্বকাপ। আর মাত্র একটি দিন। কয়েক ঘণ্টা পরই স্বাগতিক কাতার-ইকুয়েডর ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ফুটবল বিশ্বকাপের ২২তম আসর।

বরাবরের মতো এবারের বিশ্বকাপে ফেভারিটের অভাব নেই। যথারীতি বিশ্বকাপের দাবি নিয়ে আছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশের ফুটবল ভক্তদের সমর্থন এ দুই দলের দিকে। তা ছাড়া লিওনেল মেসি এবার শেষ বিশ্বকাপ খেলছেন। পর্তুগালের আরেক মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরও এটা শেষ বিশ্বকাপ। দুজনই চাইবেন ট্রফি নিয়ে ক্যারিয়ার শেষ করতে। নেইমারও খালি হাতে ফিরতে চাইবেন না। এ ছাড়া কিলিয়ান এমবাপ্পের ফ্রান্স আছে, যারা গত বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন। ইউরোপের উদীয়মান শক্তি বেলজিয়াম আর ক্রোয়েশিয়াও ফুটবলবিশ্বকে চমকে দিয়েছিল ২০১৮ সালে। এবার সে ধারা বজায় থাকবে কিনা, কাতারে উত্তর মিলবে। গাভি-পেদ্রির স্পেন ১২ বছর আগের স্মৃতি ফিরিয়ে আনতে উদগ্রীব। ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিশ্বকাপ জিতেছিল জাভি-ইনিয়েস্তার স্পেন। এবার তাদের মতো প্রতিভা নিয়ে ঝলমল করছে লা ফুরিয়া রোজারা।